বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৯
প্রথমপাতা > ক্যাম্পাস > বিভাগের সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

বিভাগের সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯ তারিখে জাঁকজমকপূর্ন পরিবেশে উদযাপিত হয়েছে। গত ২১ ডিসেম্বর, ২০১৮ তারিখে বিভাগটি ৭ম বছর পূরণ করে ৮ম বছরে পদার্পন করে। বিভাগের ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আজ আনন্দ শোভাযাত্রা, আজীবন সম্মাননা প্রদান ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বরে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান। এসময় বিভাগের শিক্ষার্থীদের সাথে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দ্য ডেইলি স্টার পত্রিকার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিকী অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোজাম্মেল হক, সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের সভাপতি উজ্জ্বল কুমার ম-ল ও বিভাগের শিক্ষকগণ। উদ্বোধন শেষে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে।
উদযাপনের অংশ হিসেবে সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগে আজীবন সম্মাননা প্রদান ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এই আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের সভাপতি উজ্জ্বল কুমার ম-ল। বাংলাদেশের সাংবাদিকতার একাডেমিক ও পেশাগত পরিসরে অসামান্য অবদান রাখায় বিভাগের পক্ষ থেকে সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান ও দ্য ডেইলি স্টার পত্রিকার সম্পাদক মাহফুজ আনামকে আজীবন সম্মাননা-২০১৮ প্রদান করা হয়।
আজীবন সম্মাননা প্রদান পর্ব শেষ হওয়ার পর আলোচনা সভার সূচনা বক্তব্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিকী অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোজাম্মেল হক বলেন, “অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান ও মাহফুজ আনামের মতো গুনীজনদের বিভাগে নিয়ে আসা বিভাগ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আরো উৎসাহিত করবে।”
‘সাংবাদিকতা শিক্ষা ও পেশাগত চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক আলোচনায় অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমান বলেন, “সাংবাদিকতার প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা সবসময় আদর্শ অবস্থা নিয়ে কথা বলে। তবে পেশাগত বাস্তবতা থাকে অন্যরকম। ফলে শিক্ষার্থীরা পেশাগত জীবনে প্রবেশ করে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে এবং এই চ্যালেঞ্জ নিয়েই তাদের কাজ করতে হয়। ফলে একাডেমিক পরিসরেই তাত্ত্বিক আলোচনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের পেশাগত বাস্তবতার সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে।”
বাংলাদেশে সাংবাদিকতার প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি সামনে এগিয়ে যেতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি গণমাধ্যম শিল্পে জড়িতদেরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
আলোচনা সভার অপর বক্তা দ্য ডেইলি স্টার পত্রিকার সম্পাদক মাহফুজ আনাম বলেন, “সাংবাদিক হতে হলে বাক-স্বাধীনতাকে ভালোবাসতে হবে। প্রতিনিয়ত প্রশ্ন করে সমাজের সেবা করাই সাংবাদিকতা। নিপীড়িত মানুষের কথা বলার মানসিকতা নিয়ে সাংবাদিকতায় আসতে হবে।”
আলোচনা সভার শেষে বিভাগের নতুন ওয়েবসাইট ‘জেএমএস পেন’ (িি.িলসংঢ়বহ.পড়স)-এর উদ্বোধন করা হয়।
সব শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মাধ্যমে বিভাগীয় সভাপতি উজ্জ্বল কুমার ম-ল প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

ফেসবুক থেকে মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।